রাবি শিক্ষক সমিতির জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, ১৬ আগস্ট ২০১৮:
১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। গতকাল জুবেরী ভবনে অনুষ্ঠিত এই আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য প্রফেসর এম আব্দুস সোবহান এবং উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা ও উপ-উপাচার্য প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়া। সমিতির কার্যানির্বাহী পরিষদের অন্যতম সদস্য প্রফেসর সোমলাল দাসের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপ-উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ নূরুল্লাহ্।
সমিতির যুগ্ম সম্পাদক ড. মো. আব্দুল্যাহ আল মারুফ সভাটি সঞ্চালনা করেন।
অনুষ্ঠানে উপাচার্য তাঁর বক্তৃতায় বলেন, বাঙালি জাতির জন্য বঙ্গবন্ধুর অবদান চিরজাগরুক হয়ে থাকবে। তিনি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি। বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে একতাবদ্ধ করে আমাদের চিরকাক্সিক্ষত স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন। তাঁর পরিচয় ও নেতৃত্বে আজ আমরা বিশ্বের বুকে একটি স্বাধীন ও গর্বিত জাতির স্বীকৃতি পেয়েছি। বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য তিনি জীবনের চৌদ্দটি বছর জেল খেটেছেন। কিন্তু তিনি কোনো চাপ বা নির্যাতনের কাছে নতি স্বীকার করেননি। জাতির জন্য তাঁর অবদানের স্বীকৃতিতে জাতি তাঁকে বঙ্গবন্ধু উপাধি দেয়।
স্বাধীনতার মাত্র তিন বছর পরেই একদল বিপথগামী সৈনিকের হাতে বঙ্গবন্ধু নির্মমভাবে শহীদ হন। তাঁর হত্যাকা-ে জাতি হয়ে পড়ে দিকভ্রান্ত। কিন্তু বাঙালি বীরের জাতি। তাই হতবিহ্বলতা কাটিতে জাতি আবার ঘুরে দাঁড়ায়। দীর্ঘ একুশ বছর পর বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার করে তার রায় কার্যকর করা হয়।
বাঙালি জাতির জীবনে বঙ্গবন্ধু এক চিরঞ্জীব চেতনার নাম। তিনি আজ আমাদের মধ্যে নেই। কিন্তু তাঁর চেতনা রয়ে গেছে। সেই চেতনার বাস্তবায়নের মাধ্যমেই আমরা বঙ্গবন্ধুর প্রতি উপযুক্ত সম্মান দেখাতে পারবো। সেই লক্ষ্যেই আমাদের নিরন্তর কাজ করে যেতে হবে।


All rights reserved © ICT Center, Unversity of Rajshahi 2016.
webmaster@ru.ac.bd